ধর্ষণের মিথ্যা মামলায় বাদীকে কারাদণ্ড

adalot.jpg

প্রতি‌দিন ডেস্ক:বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান ধর্ষণের অভিযোগের মামলা মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় মামলার বাদী আসমা বেগমকে (২৬) ৫ বছরে কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন। আজ আসমা বেগমের উপস্থিতিতে আদালত এ রায় দেন। আদালতে  রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আজকের এ রায় একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। মিথ্যা ও বানোয়াট নারী নির্যাতন-ধর্ষণ মামলা যারা করেন তাদের জন্য এটি সতর্কীকরণ। আসামিপক্ষের আইনজীবী জিয়া উদ্দীন বলেন, আশা করি মিথ্যা মামলা দেয়ার প্রবণতা কমে আসবে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, তালতলী উপজেলার ঝাড়াখালী গ্রামের আব্দুস ছত্তার খানের ছেলে স্বপনের বিরুদ্বে প্রতিবেশী কালাম খানের স্রী আসমা বেগম ধর্ষণের অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ২০১৬ সালের ১৫ মে একটি মামলা দায়ের করেন। তালতলী থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা সরেজমিনে তদন্ত শেষে অভিযোগ ভিত্তিহীন উল্লেখ করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেন।

 

২০১৭ সালের ২ জানুয়ারি স্বপন খান ধর্ষণ মামলার বাদী আসমা বেগমের বিরুদ্ধে একই আদালতে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করে সম্মানহানী, হয়রানী করার অভিযোগ মামলা দায়ের করেন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top