গালি শুনে অসুস্থ, ইভ্যালির পদ ছাড়তে চান এমডি মাহবুব

image-164787-1643952217-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট:  প্রতারণার অভিযোগে গত বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে মোহাম্মদপুরে স্যার সৈয়দ রোডের নিলয় কমপ্রিহেনসিভ হোল্ডিংয়ের (হাউজ নম্বর ৫-৫এ) বাসা থেকে ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে আটক করে র‌্যাব।তারা দুজন এখন কারাগারে আছেন।

হাইকোর্টের নির্দেশে গত বছরের ১৮ অক্টোবর ইভ্যালির পরিচালনার দায়িত্ব নেন আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিকের নেতৃত্বে গঠিত পাঁচ সদস্যের পরিচালনা পর্ষদ। এতে ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব দেওয়া হয় মো. মাহবুব কবীর মিলনকে। সম্প্রতি গ্রাহকদের গালাগালি শুনে অসুস্থ হ‌য়ে পড়েছেন তিনি।এমন পরিস্থিতিতে প্রতিষ্ঠান‌টির পদ ছেড়ে দেওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছেন মাহবুব কবীর।

এর আগে ইভ্যালির গাড়ি নিলামের বিজ্ঞপ্তি দেখে এমডির পদত্যাগ চে‌য়ে পোস্ট দেন গ্রাহকরা। সেখানে চেয়ারম্যান ও এমডিকে উ‌দ্দেশ্য ক‌রে অনেকে গালাগালি ক‌রে‌ছে।

এ বিষয়‌টি দেখে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা ২৪ মিনিটে ফেসবু‌কে এক‌টি স্ট্যাটাস দিয়ে প্রতিষ্ঠান‌টির পদ ছেড়ে দেওয়ার কথা জানান তিনি।

স্ট্যাটাসে তিনি লি‌খে‌ছেন, ‌‘কোম্পানি রান করবে; না দেউলিয়া ঘোষিত হবে সে সিদ্ধান্ত নেবে একমাত্র ব্যবস্থাপনা পরিচালক। মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগের আদেশে সুস্পষ্টভাবে সেটাই বলা আছে। কোম্পানি রান করার বিন্দুমাত্র সুযোগ থাকলে তার চেষ্টা না করে কোনো অবস্থাতেই লাখ লাখ মানুষকে পথে বসানোর সিদ্ধান্ত দেবে না ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

তিনি কোম্পানির টাকায় এক কাপ চাও খাননি, খাবেনও না। বিনা পারিশ্রমিকে নিজের গাড়িতে তেল, মবিল পুড়িয়ে অফিস করছেন।

সেখান থেকে বের হওয়ার দিন পর্যন্ত মানুষের কল্যাণের জন্য তা-ই করে যাবেন।

গালাগালি খুব করে করতে থাকুন, যাতে তার দ্রুত সেখান থেকে বের হয়ে যাওয়ার পথ তরান্বিত হয়। তিনি অনেক কিছুই গুছিয়ে এনেছিলেন।

আল্লাহপাক আপনাদের হেফাজত করুন।

স্ট্যাটাসে তিনি আরও লেখেন, আমি একা এই অফিস ঝাড়ু দিয়েছি। ২০-২৫ দিন শুধুমাত্র একা অফিস করেছি। ২য় কেউ ছিল না। বাসায় গিয়ে রাত ১২টা পর্যন্ত কাজ করেছি গত দুই মাস ধরে। অনেক কিছুই গুছিয়ে এনেছিলাম। আহা! আমাকে করা গালাগালির ভাষাগুলো দেখছি আর চরমভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ছি। ছেড়ে দেওয়া ছাড়া আমার আর কোনো অপশন নেই।’

এর আগে বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) নিলামের মাধ্যমে গাড়ি বিক্রয়ের বিজ্ঞপ্তি দেয় ইভ্যালি। প্রতিষ্ঠানটির বর্তমান ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মাহবুব কবীর এ নিলামের আহ্বান করেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি নিলামে তোলা হবে গাড়িগুলো।ইভ্যালির একটি রেঞ্জ রোভার, একটি টয়োটা প্রিউস, একটি টয়োটা সিএইচআর, দুটি টয়োটা এক্সিও, একটি হোন্ডা ভেজেল ও একটি টয়োটা মাইক্রোবাস আপাতত নিলামে তোলা হবে বলে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে গাড়ির দামও উল্লেখ করা হয়েছে।গাড়িগুলোর মধ্যে রেঞ্জ রোভারের ন্যূনতম নিলাম মূল্য এক কোটি ৬০ লাখ টাকা উল্লেখ করা হয়েছে। এ ছাড়া টয়োটা প্রিউসের ন্যূনতম দর ১৩ লাখ ৫০ হাজার, হোন্ডা ভেজেলের দর ১৬ লাখ, টয়োটা সিএইচআরের দর ১৮ লাখ, টয়োটা এক্সিওর প্রতিটির দর ৯ লাখ ১৮ হাজার ও টয়োটা মাইক্রোবাসের ন্যূনতম দর ১২ লাখ টাকা ধরা হয়েছে।

নিলাম বিজ্ঞপ্তি‌তে বলা হ‌য়ে‌ছে, ইভ্যালি ডটকম লিমিটেডের নামে রেজিস্ট্রেশন করা সাতটি গাড়ি রেজিস্ট্রেশন সনদ, ট্যাক্স টোকেন ও ফিটনেস (যে অবস্থায় আছে) ভিত্তিতে খোলা নিলামের মাধ্যমে বিক্রয় করা হবে।

ইভ্যালির ধানমন্ডির উইন্সকোর্ট অফিস থেকে আগ্রহী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান নিলামের নিবন্ধন কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন। নিলামের দরপত্র জমা দেওয়া যাবে ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।৫ ও ৬ ফেব্রুয়ারি গাড়িগুলো ক্রেতাদের দেখার জন্য রাজধানীর বারিধারার ১১নং সড়কে সাউথ পয়েন্ট স্কুলের পাশে রাখা হবে।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top
error: Content is protected !!