খুলনায় স্ত্রী ও কন্যাকে হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

-আদালত-পাড়ার-খবরা-খবর.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক//
খুলনার ডুমুরিয়ায় স্ত্রী ও কন্যাকে হত্যার দায়ে স্বামী মাহাবুবুর মোড়লকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। এসময় তাকে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। রায় ঘোষণার সময় আসামি পলাতক ছিলেন।
মঙ্গলবার (০৫ জুলাই) খুলনা সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মীর শফিকুল আলম এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওই আদালতের পিপি শেখ এনামুল হক।

আসামি মাহবুব ডুমুরিয়া উপজেলার মঠবাড়িয়া এলাকার সিরাজ মোড়লের ছেলে।

আদালত সূত্র জানায়, হত্যাকাণ্ডের তিন বছর পূর্বে পারিবারিকভাবে মাহবুবুর মোড়লের সঙ্গে ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক রেশমা বেগমের বিয়ে হয়। এর এক বছর পর থেকে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ দেখা দেয়। প্রায়ই মাহবুবুর স্ত্রীকে মানষিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করত।

২০১৫ সালের ৩১ আগস্ট পারিবারিক বিষয় নিয়ে উভয়ের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে আসামি মাহবুব ওই দিন সকাল সাড়ে ৯টার দিকে স্ত্রী রেশমাকে বাবার বাড়িতে যাওয়ার কথা বললে সে যেতে অস্বীকৃতি জানায়। এরপর ক্ষিপ্ত হয়ে রেশমা বেগম ও তার ১ বছর বয়সী কন্যাকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। তাদের দুজনের মৃত্যু নিশ্চিত করে মাহবুব পালিয়ে যায় মাহবুব।

আসামি মাহবুবুরের পিতা সিরাজ মোড়ল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রেশমার পিতাকে হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি জানান। তিনি তৎক্ষণিক পুলিশকে খবর দিলে তাদের মরদেহের সুরাতহাল রির্পোট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য খুমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।

২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর নিহতের পিতা আবুল কালাম বাদী হয়ে ডুমুরিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। একই বছরের ৩১ ডিসেম্বর ডুমুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মঞ্জুরুল আলম নিহতের স্বামী মাহবুবুকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
error: Content is protected !!