অভিনেত্রী পল্লবীর রহস্যমৃত্যু, উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ

gftytgyugh.jpg

‘আমি সিরাজের বেগম’, ‘কুঞ্জছায়া’, ‘রেশম ঝাঁপি’ এবং ‘মন মানে না’ খ্যাত জনপ্রিয় অভিনেত্রী পল্লবীর রহস্যমৃত্যু ঘিরে হাজারেও প্রশ্ন উঠে আসছে।

রবিবার (১৫ মে) তার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের পর পুলিশের তদন্তে লিভ-ইন সম্পর্কে টানাপড়েন-ই নজরে উঠে আসছে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত দেড় মাস ধরে সাঁতরাগাছির বাসিন্দা পল্লবী তার এক সঙ্গীর সঙ্গে গড়ফা এলাকায় ফ্ল্যাটে থাকতেন। রবিবার সকালে সিগারেট খেতে বাইরে যান পল্লবীর সঙ্গী। তিনি ফিরে দেখেন দরজা ভেতর থেকে বন্ধ। বাইরে থেকে কেউ ভেতরে এসেছে কিনা তাও জানা নেই। দরজা ভেঙে তিনি ভেতরে ঢুকতেই দেখেন, সিলিং থেকে ঝুলছে পল্লবীর ঝুলন্ত দেহ। তার পরই তিনি পুলিশে খবর দেন।
সূত্রের খবর, দুদিন ধরে কথা কাটাকাটি নাকি হয়েছিল দুজনের মধ্যে। কিন্তু কী নিয়ে তা জানা যায়নি। সেটা সঙ্গীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। কোনও সুইসাইড নোটও উদ্ধার হয়নি ঘর থেকে। এদিন সিলিং থেকে বিছানার চাদর দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় পল্লবীর দেহ উদ্ধার হয়।
গত বছর জুলাই মাসে পল্লবীর ফেসবুক প্রোফাইল অনুযায়ী, ‘ইন আ রিলেশনশিপ’ স্ট্যাটাস ছিল তার। অর্থাৎ এটা ধরেই নেওয়া যায় এখনও সেই সম্পর্ক বর্তমান ছিল। তবে কি সম্পর্কের টানাপড়েনেই এই মৃত্যু, তা এখনও স্পষ্ট নয়। বিষয়টির তদন্ত করছে পুলিশ।

বর্তমানে ‘মন মানে না’ ধারাবাহিকে অভিনয় করছিলেন পল্লবী। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ধারাবাহিকের শুটিং করেছেন তিনি। স্বাভাবিকভাবেই কাজ করেছিলেন। তার যে এমন মর্মান্তিক পরিণতি হবে, কলাকুশলী থেকে সিরিয়ালের প্রযোজনা সংস্থার কেউ-ই আঁচ করতে পারেননি।

‘আমি সিরাজের বেগম’ ধারাবাহিকে সিরাজের স্ত্রী লুৎফার চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন পল্লবী। তার আগে ‘রেশম ঝাঁপি’ ধারাবাহিকেও একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেন পল্লবী। কাজ করেছিলেন ‘কুঞ্জছায়া’ ধারাবাহিকেও। টলিউডে অল্প সময়ের মধ্যেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠা পল্লবীর এমন অকাল প্রয়াণে ভেঙে পড়েছেন সহকর্মীরা।
সূত্র: দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
error: Content is protected !!