খাদ্য সংকটের হুঁশিয়ারি শ্রীলঙ্কার

oohghfdfds.jpg

বিদেশ ডেস্ক:ভয়াবহ আর্থিক সংকটে শ্রীলঙ্কায় খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে বলে সতর্ক করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে। আগামী মৌসুমে উৎপাদন বাড়াতে সরকার যথেষ্ট সার আমদানি করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

গত বছরের এপ্রিলে প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে দেশটিতে রাসায়নিক সার আমদানি নিষিদ্ধ করেন। এতে নাটকীয়ভাবে দেশটির উৎপাদন কমে যায়। পরে সরকার এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলেও দেশটিতে এখন পর্যন্ত প্রয়োজনীয় সার আমদানি হয়নি।
বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে বলেন, ‘এই ইয়ালা (মে-আগস্ট) মৌসুমে সার পাওয়ার সময় না থাকলেও, মাহা (সেপ্টেম্বর-মার্চ) মৌসুমের জন্য পর্যাপ্ত মজুত নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। আমি সবাইকে পরিস্থিতির তীব্রতা মেনে নেওয়ার জন্য আন্তরিকভাবে অনুরোধ করছি’।
বৈদেশিক মুদ্রা, জ্বালানি ও ওষুধের মারাত্মক সংকটের মুখে পড়েছে শ্রীলঙ্কা। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডও সীমিত হয়ে পড়েছে।

শুক্রবার বাণিজ্যিক রাজধানী কলম্বোর পেত্তাহ মার্কেটে ফল ও সবজি বিক্রি করছিলেন ৬০ বছরের নারী এপিডি সুমানাভাথি। তিনি বলেন, ‘জীবন কতটা কঠিন তা বলার কিছু নেই। আমি ধারণা করতে পারি না আগামী দুই মাসের মধ্যে সবকিছু কেমন হবে, এভাবে চললে আমরা এখানে নাও থাকতে পারি।’
কাছেই রান্নার গ্যাস বিক্রির এক দোকানের সামনে তৈরি হয়েছে দীর্ঘ লাইন। সংকটের কারণে এর দামও বেড়েছে। পার্ট টাইম গাড়ি চালানোর কাজ করেন মোহাম্মদ সাজলি। পাঁচ জনের পরিবারের রান্নার গ্যাসের জন্য তিন দিন ধরে লাইনে দাঁড়াচ্ছেন তিনি। সাজলি বলেন, ‘মাত্র দুইশ’ সিলিন্ডার বিতরণ করা হচ্ছে, যদিও এখানে পাঁচশ’ মানুষ দাঁড়িয়ে আছে। গ্যাস ছাড়া, কেরোসিন ছাড়া আমরা কিছুই করতে পারি না। শেষ বিকল্প কী? খাবার ছাড়া আমরা মারা যাবো। শতভাগ সেটাই ঘটবে।’

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন বিশ্বব্যাংকের ঋণ এবং রেমিট্যান্সের মাধ্যমে জ্বালানি ও রান্নার গ্যাস কেনার জন্য বৈদেশিক মুদ্রার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে সরবরাহ এখনও কম। আগামী কয়েক মাসে মুদ্রাস্ফীতি ৪০ শতাংশে বাড়তে পারে বলে সতর্ক করেন তিনি।

এপ্রিলে মুদ্রাস্ফীতি ২৯.৮ শতাংশে পৌঁছায়। আর গত বছরের তুলনায় এবছর খাবারের দাম বেড়েছে ৪৬.৬ শতাংশ।

সূত্র: রয়টার্স

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
error: Content is protected !!