ভূমি পুনরুদ্ধার ছাড়া যুদ্ধবিরতি নয়: জেলেনস্কি

ezgif-kp.jpg

প্রতিদিন ডেস্ক:রাশিয়ার দখল করে নেওয়া ভূমি পুনরুদ্ধার বাদ রেখে মস্কোর সঙ্গে কোনও যুদ্ধবিরতি হবে না বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। তিনি দাবি করেন, এমন কিছু করা হলে তাতে কেবল যুদ্ধ দীর্ঘায়িত হবে। শুক্রবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন জেলেনস্কি।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট সতর্ক করে বলেন, গত ফেব্রুয়ারিতে তার দেশে আগ্রাসন শুরুর পর রাশিয়া যেসব ভূমি দখল করেছে সেসব ভূমি দখলে রাখা অবস্থায় তাদের সঙ্গে যুদ্ধবিরতি হলে কেবল আরও বড় সংঘাতের সুযোগ তৈরি হবে। এতে মস্কো পরবর্তী ধাপের জন্য নিজেদের অস্ত্র ও ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার সুযোগ পাবে।

যুক্তরাষ্ট্রের সরবরাহ করা অত্যাধুনিক হিমার্স রকেট সিস্টেম নিয়েও কথা বলেন জেলেনস্কি। তিনি বলেন, ‘পশ্চিমাদের সরবরাহ করা হিমার্স বস্তুগত পার্থক্য তৈরি করতে পারলেও স্রোত উল্টে দেওয়ার জন্য ইউক্রেনের আরও বেশি কিছু প্রয়োজন’। তিনি আরও বলেন, ‘রুশ ফেডারেশনের সঙ্গে যুদ্ধ স্থবির করার অর্থ রুশ ফেডারেশনকে বিশ্রামের সুযোগ দেওয়া’।
জেলেনস্কি বলেন, ‘সমাজ বিশ্বাস করে প্রথমে অবশ্যই সব ভূমি স্বাধীন করতে হবে এবং তার পরে কী করা প্রয়োজন ও আগামী শতাব্দীগুলোতে কিভাবে বাঁচতে পারবো তা নিয়ে দরকষাকষি করতে পারি’। তিনি আরও বলেন, আরও গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রয়োজন হচ্ছে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, যা রাশিয়াকে সম্মুখ যুদ্ধের লাইন থেকে শত শত মাইল দূরের শান্তিপূর্ণ শহরগুলোতে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ থেকে বিরত রাখতে পারে’।

শস্য রফতানি ফের শুরুর জন্য রাশিয়ার সঙ্গে সই হওয়া চুক্তির প্রতি ইঙ্গিত করে জেলেনস্কি বলেন, মস্কোকে কূটনৈতিক ছাড় দেওয়ায় বাজার কিছুটা স্থিতিশীল হতে পারে, তবে ভবিষ্যতের জন্য এটা কেবল একটি অস্থায়ী অবকাশ এবং বুমেরাং হয়ে উঠতে পারে’।

ইউক্রেনের কৃষ্ণ সাগরের বন্দর দিয়ে শস্য রফতানি ফের চালু করতে শুক্রবার চুক্তি সই করেছে রাশিয়া ও ইউক্রেন। ধারণা করা হচ্ছে এই চুক্তির ফলে ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়তে থাকা খাদ্য পণ্যের দাম স্থিতিশীল হয়ে আসতে পারে।

সূত্র: রয়টার্স

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
error: Content is protected !!