সহকর্মীকে হত্যার অভিযোগে আনসার সদস্য আটক

Ansar-kp.jpg

প্রতিদিন ডেস্ক:মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় আব্দুল কুদ্দুস (৪০) নামে এক আনসার সদস্যের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত মো. শাহিন (২৭) নামে আরেক আনসার সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি পুলিশের কাছে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন।

ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ বিপ্লব জানান, শনিবার (২৩ জুলাই) সকাল সাড়ে ৭টায় ঘিওর উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসের সামনে থেকে আব্দুল কুদ্দুসের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। তার বাড়ি দৌলতপুর উপজেলার হাতকড়া এলাকায়। তিনি ঘিওর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ে রাতে দায়িত্বে থাকতেন।
ওসি বলেন, ‘সকাল ৬টার দিকে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। তৎক্ষণাৎ বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে শাহিনকে উপজেলা আনসার কার্যালয় থেকে আটক করা হয়। শাহিন ও কুদ্দুসের মধ্যে মাঝে মাঝে ঝগড়া হতো। এর জেরে কুদ্দুসকে বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে শাহিন স্বীকার করেছেন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. এফতেখারুল ইসলাম জানান, হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে অভ্যন্তরীণ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।

শিবালয় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরজাহান লাবনী জানান, সকাল ৬টায় উপজেলা আনসার ও ভিডিপি অফিসের সামনে বস্তাবন্দি লাশ ও একটি মোটরসাইকেল পড়ে থাকার খবর আসে। এরপর পুলিশ গিয়ে নিশ্চিত হয় লাশটি আনসার সদস্য আব্দুল কুদ্দুসের। আটকের পর প্রাথমিকভাবে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন শাহিন। তবে কী কারণে হত্যা করেছে তা এখনও জানা যায়নি। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
error: Content is protected !!