শেষ বৈঠকে দুইবার তাশাহুদ পড়ে ফেললে যা করবেন

tasahhud-20220726125626.jpg

আল্লাহ তায়ালা মুমিনের ওপর প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ করেছেন। এই ফরজ বিধান ঠিকমতো পালন না করলে অথবা অবহেলা করলে কঠিন শাস্তির কথা এসেছে হাদিসে। নামাজ পড়ার সময় প্রতি দুই রাকাত পর বৈঠকে বসা ফরজ। আর বৈঠকে তাশাহহুদ পড়া ওয়াজিব বা আবশ্যক। কেউ যদি নামাজের শেষ রাকাতের বৈঠকে ভুলে দু্‌ইবার তাশাহুদ পড়ে ফেলে তাহলে তার জন্য কি সেজদায়ে সাহু ওয়াজিব হবে নাকি তার নামাজ হয়ে যাবে?

তাশাহুদের গুরুত্ব অপরিসীম। হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) ও জাবের (রা.) বলেন, রাসূলুলল্লাহ সাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদেরকে তাশাহুদ এমনভাবে শেখাতেন যেমন কোরআনের কোনো সূরা শেখাতেন। -(মুসলিম, নাসায়ী, মেশকাত, ৮৫)

কেউ যদি নামাজের শেষ বৈঠকে ভুলে তাশাহুদ দুইবার পড়ে ফেলে চাই ইমাম হোক অথবা একাকী নামাজ আদায়কারী, তাহলে তার ওপর সেজদায়ে সাহু ওয়াজিব হবে না। তবে তাশাহহুদ একবার পড়াই নিয়ম। তাই ইচ্ছাকৃতভাবে এমনটি করবে না। ভুলে হলে অসুবিধা নেই।

তবে কেউ যদি একাই নামাজ পড়তে গিয়ে অথবা নামাজের ইমামতি করতে গিয়ে প্রথম বৈঠকে দুইবার তাশাহুদ পড়ে ফেলে তাহলে দ্বিতীয়বার পড়ার কারণে নামাজের শেষে তাকে সেজদায়ে সাহু দিতে হবে। কারণ নামাজের তৃতীয় রাকাতের জন্য দাঁড়ানো ফরজ। আর প্রথম বৈঠকে দুইবার তাশাহুদ পড়ার কারণে ফরজের জন্য দাঁড়াতে দেরি হয়েছে, এজন্য সেজদায়ে সাহু দিতে হবে।

ইমাম অথবা একাকী নামাজ আদায়কারীর বাইরে মুক্তাদি যদি প্রথম অথবা দ্বিতীয় বৈঠকে দুইবার তাশাহুদ পড়ে, চাই ইচ্ছা করে পড়ুক বা ভুলে তাহলে তার ওপর সেজদায়ে সাহু ওয়াজিব হবে না। তবে ইচ্ছাকৃতভাবে এমন করা ঠিক নয়। -আততাজনীস ওয়াল মাযীদ ২/১৪৪; আযযাখীরাতুল বুরহানিয়া ২/২৫৬; ফাতহুল কাদীর ১/৪৩৯; শরহুল মুনইয়া, পৃ. ৪৬০; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১২৭

উচ্চারণসহ তাশাহহুদ

আরবি :

التَّحِيَّاتُ لِلَّهِ وَالصَّلَوَاتُ وَالطَّيِّبَاتُ ، السَّلَامُ عَلَيْكَ أَيُّهَا النَّبِيُّ وَرَحْمَةُ اللَّهِ وَبَرَكَاتُهُ ، السَّلَامُ عَلَيْنَا وَعَلَى عِبَادِ اللَّهِ الصَّالِحِينَ ، أَشْهَدُ أَنْ لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ وَأَشْهَدُ أَنَّ مُحَمَّدًا عَبْدُهُ وَرَسُولُهُ

উচ্চারণ : আত্তাহিইয়্যাতু লিল্লাহি ওয়াছ ছালাওয়াতু ওয়াত ত্বাইয়্যিবাতু, আসসালামু আলাইকা আইয়্যুহান নাবিয়্যু ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। আসসালামু আলাইনা ওয়া আলা ইবাদিল্লাহিছ ছালিহীন, আশহাদু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়া আশহাদু আন্না মুহাম্মাদান আবদুহু ওয়া রাসুলুহু।

অর্থ : সমস্ত মৌখিক, শারীরিক ও আর্থিক ইবাদত আল্লাহর জন্য। হে নবি! আপনার প্রতি সালাম এবং আল্লাহর রহমত ও বরকত নাজিল হোক। সালাম আমাদের প্রতি এবং আল্লাহর নেক বান্দাদের প্রতি। আমি সাক্ষ্য প্রদান করছি যে, আল্লাহ ব্যতিত আর কোনো মাবুদ নাই এবং আমি আরও সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, নিশ্চয়ই মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আল্লাহর বান্দা এবং রাসুল।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top
error: Content is protected !!