বিদেশে চাকুরীর প্রলোভনে যুবতীকে পাচারকালে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার ৬

rab-6-1-pahar.jpg

নিজস্ব সংবাদদাতা:বিদেশে ভালো বেতনে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে এক যুবতী (২৭)কে পাচারকালে ওই চক্রের ৬জন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬ সদস্যরা। ভারতের সীমান্তবর্তী কয়েকটি জেলায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় পাচারের শিকার ওই যুবতীকে উদ্ধার করে র‌্যাব। এঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তারা। আজ রবিবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে র‌্যাব-৬ কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসকল তথ্য জানান অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মুহাম্মদ মোসতাক আহমদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর কোম্পানী কমান্ডার (এসপি) আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম ও স্কয়াড কমান্ডার লেঃ আবুল কালাম আজাদ।

গ্রেফতার হওয়া পাচারকারী চক্রের সদস্যরা হলো- ডুমুরিয়া উপজেলার চেচুড়ি এলাকার মৃত আকরাম গাজীর ছেলে মোঃ ফারুক গাজী (১৯), দহাকুল এলাকার মৃত রাধাকান্ত মন্ডলের পুত্র সঞ্জীব কুমার মন্ডল (৫০), ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর থানার সামান্তা এলাকার মোঃ ইব্রাহিম খলিলের ছেলে মোঃ সাঈদ আনোয়ার ওরফে চঞ্চল (২৫), ভগবতিতলা এলাকার মৃত চতুর আলী মন্ডলের পুত্র মোঃ আলী হোসেন মন্ডল (৪৫), সামান্তা চারাতলা এলাকার মৃত আঃ ওহাব মন্ডলের ছেলে মোঃ ছয়ফাল মন্ডল (৪০) ও ডুমুরিয়া উপজেলার গোনালী গ্রামের মৃত আসের আলী ফকিরের ছেলে এফ এম রফিকুল ইসলাম (৪০)।

র‌্যাব সিও জানান, গত ১১ ডিসেম্বর সকালে র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) খুলনার একটি চৌকশ আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে জানতে পারে, আসামী এফএম রফিকুল ইসলাম ভিকটিমকে বিদেশে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখায় এবং পলাতক আসামী আক্তার মোল্লা (২৫)’র সাথে মোবাইলে পরিচয় করিয়ে দেয়। ভিকটিম পলাতক আসামী আক্তার মোল্লার সাথে মোবাইলে কথা বলার এক পর্যায়ে আসামী মোঃ ফারুক গাজী (১৯) ভিকটিমকে দ্রুত বাড়ী থেকে বের হয়ে খুলনার ডুমুরিয়া থানাধীন ৪ নং খর্নিয়া ইউনিয়নের টিপনা বাইলেখালি ব্রিজের উপর আসতে বলে। ভিকটিম উক্ত স্থানে আসলে আসামী ফারুক গাজী (১৯) ও আসামী সঞ্জিব মন্ডল(৫০) এর মোটর সাইকেলে ২জনের মাঝে বসিয়ে দ্রুত নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তাদের কথাবর্তায় ভিকটিম বুঝতে পারে আসামীরা পরস্পর যোগসাজসে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ভারতে পাচারের পরিকল্পনা করছে। তাৎক্ষনিকভাবে ভিকটিম চিৎকার করলে র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) খুলনার একটি চৌকশ আভিযানিক দল উক্ত স্থানে উপস্থিত হলে আসামীদ্বয় টের পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কৌশলে পালানোর চেষ্টাকালে মোঃ ফারুক গাজী (১৯) ও সঞ্জীব কুমার মন্ডল (৫০) কে গ্রেফতার করা হয়। এরপর তাদের দেয়া তথ্যমতে অভিযান চালিয়ে খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানা, যশোর জেলার মনিরামপুর থানা, কেশবপুর থানা, চৌগাছা থানাসহ ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর থানার অর্ন্তগত সামান্ত বাজারে আভিযান পরিচালনা করে আর্ন্তজাতিক সংঘবদ্ধ মানবপাচার চক্রের মূলহোতা বাংলাদেশী এজেন্টসহ ৬জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামীদের খুলনার ডুমুরিয়া থানায় হস্তান্তরসহ মানব পাচার আইনে মামলা দায়েরের পক্রিয়া চলছে।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top
error: Content is protected !!