আইটি উদ্যোক্তাদের সহজ ঋণ সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে ব্র্যাক ব্যাংক এর চুক্তি

inbound4510440648971307945.jpg

ঢাকা অফিসঃ বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে ব্র্যাক ব্যাংক।
এই চুক্তির মাধ্যমে সারা দেশের হাই-টেক পার্ক সমূহে অবস্থিত আইটি, আইটি সহায়ক সার্ভিস (আইটিইএস) ও বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) কোম্পানি সমূহকে অগ্রাধিকারমূলক অর্থায়ন সেবা প্রদান করবে ব্র্যাক ব্যাংক।
এই সমঝোতার মাধ্যমে হাই-টেক পার্কে প্রতিষ্ঠিত আইটি, আইটিইএস এবং বিপিও প্রতিষ্ঠান সমূহকে ব্র্যাক ব্যাংক জামানতবিহীন এসএমই অর্থায়ন সহ অন্যান্য আর্থিক সেবা প্রদান করবে। সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ স্বপ্নকল্প বাস্তবায়নের পথে তথ্য ও প্রযুক্তি খাত যখন দ্রুত সম্প্রসারণের দিকে যাচ্ছে, তখন এই চুক্তি আইটি কোম্পানিগুলোর জন্য নতুন সম্ভাবনার পথ উন্মুক্ত করবে।
ব্র্যাক ব্যাংক এর ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর (ডিএমডি) অ্যান্ড হেড অব এসএমই ব্যাংকিং সৈয়দ আব্দুল মোমেন এবং বিএইচটিপিএ-র ম্যানেজিং ডিরেক্টর বিকর্ণ কুমার ঘোষ ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ঢাকায় বিএইচটিপিএ-র প্রধান কার্যালয়ে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

অনুষ্ঠানে ব্র্যাক ব্যাংক এর রিজিওনাল হেড, ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্ক নাকিব জামান এবং বিএইচটিপিএ-র পরিচালক এ এন.এম শফিকুল ইসলামও এসময় উপস্থিত ছিলেন।
কুটির শিল্প, অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি (সিএমএসএমই) খাতে জামানতবিহীন অর্থায়নে ব্র্যাক ব্যাংক এর দীর্ঘ অভিজ্ঞতার পরিপ্রেক্ষিতে আশা করা যায়, এই সমঝোতা চুক্তি হাই-টেক পার্কের তথ্য প্রযুক্তি কোম্পানি সমূহের দীর্ঘমেয়াদী প্রবৃদ্ধি অর্জনের পথে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।
এ পার্টনারশিপ সম্পর্কে ব্র্যাক ব্যাংক এর ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর (ডিএমডি) অ্যান্ড হেড অব এসএমই ব্যাংকিং সৈয়দ আব্দুল মোমেন বলেন, “হাই-টেক পার্কের তথ্য প্রযুক্তি কোম্পানি সমূহকে সহজ অর্থায়ন সুবিধা প্রদানের অপার সম্ভাবনা আছে। আমাদের বিশেষায়িত অর্থায়ন সুবিধার মাধ্যমে আমরা তথ্য প্রযুক্তি কোম্পানিকে ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে ও প্রবৃদ্ধির পথে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবো। এ পার্টনারশিপের জন্য আমরা বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই এবং আমরা আশা করি এর মাধ্যমে আমরা এখাতে উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারবো।”
সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ ভিশন বাস্তবায়নকে এগিয়ে নেবার লক্ষ্যে ব্র্যাক ব্যাংক একাত্ব হয়ে কাজ করছে। দেশের অর্থনীতিকে বদলে দেয়ার অন্যতম হাতিয়ার হিসেবে কাজ করতে পারে দেশের সম্ভাবনাময় তথ্য প্রযুক্তি খাত। গত দুই দশকের অভাবনীয় প্রবৃদ্ধির প্রেক্ষিতে আগামী কয়েক বছরে এই খাত দেশের অন্যতম বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী খাত হিসেবে আবির্ভূত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। উদীয়মান তথ্য প্রযুক্তি খাতের এই অগ্রযাত্রায় সাথে থাকতে ব্র্যাক ব্যাংক প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড সম্পর্কে:
ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) খাতের অর্থায়নে অগ্রাধিকার দেয়ার ভিশন নিয়ে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড ২০০১ সালে যাত্রা শুরু করে, যা এখন পর্যন্ত দেশের অন্যতম দ্রুত প্রবৃদ্ধি অজনকারী একটি ব্যাংক। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ‘BRACBANK’ প্রতীকে ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়। ১৮৭টি শাখা, ৩৭৪ টি এটিএম, ৪৬১টি এসএমই ইউনিট অফিস, ৬০০টিরও বেশি এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট এবং ৮ হাজারেরও বেশি মানুষের বিশাল কর্মীবাহিনী নিয়ে ব্র্যাক ব্যাংক কর্পোরেট ও রিটেইল সেগমেন্টেও সার্ভিস দিয়ে আসছে। ব্যাংকটি দৃঢ় ও শক্তিশালী আর্থিক পারফরম্যান্স প্রদর্শন করে এখন সকল প্রধান প্রধান মাপকাঠিতেই ব্যাংকিং ইন্ডাস্ট্রির শীর্ষে অবস্থান করছে। এগারো লাখেরও বেশি গ্রাহক নিয়ে ব্র্যাক ব্যাংক বিগত ২০ বছরেই দেশের সবচেয়ে বৃহৎ জামানতবিহীন এসএমই অর্থায়নকারী ব্যাংক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। দেশের ব্যাংকিং খাতে সুশাসন, স্বচ্ছতা ও নিয়মানুবর্তিতায় অনন্য দৃষ্টাšত স্থাপন করেছে ব্র্যাক ব্যাংক।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top
error: Content is protected !!