বড় ভাইকে তেলে ঝলসে হত্যা : ছোট ভাইয়ের ১০ বছরের জেল

160559Untitled-4-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট: ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের সাপুয়া গ্রামে বড় ভাই জহিরুল হক জহিরকে পিটিয়ে কড়াইয়ের গরম তেলে ফেলে ঝলসে হত্যা মামলার রায় দিয়েছেন আদালত। এ মামলায় অভিযুক্ত ছোট ভাই নিজাম উদ্দিনকে ১০ বছরের সাজা ও পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। আজ মঙ্গলবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ ড. বেগম জেবুন্নেছা আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

নিহতের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার জানান, এ রায়ে তিনি সন্তুষ্ট নন, তিনি উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

সূত্র মতে, ২০১৯ সালের ২৬ মার্চ সকাল ৭টায় দাগনভূঞা উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের সাপুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে জনৈক ফারুকের চায়ের দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সেখানে স্থানীয় ছেরাজুল হক মৌলভীবাড়ির জহিরুল হক জহির আসামাত্র পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা কয়েকজন তাঁকে পিটিয়ে আহত করে। একপর্যায়ে জহিরকে কড়াইয়ের গরম তেলে ফেলে দেওয়া হয়। আশপাশের লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। চিকিৎসা দিয়ে ২৭ মার্চ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩ এপ্রিল সন্ধ্যায় মারা যান জহির।

এ ঘটনায় তাঁর ভগ্নিপতি ফজলুল করিম বাদী হয়ে ৪ এপ্রিল রাজধানীর শাহবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। পরে নিহতের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার রিমা বাদী হয়ে মৃত নুরুল হক মিয়ার ছেলে এবং নিহতের ছোট ভাই নিজাম উদ্দিনকে আসামি করে দাগনভূঞা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলাটি প্রথমে তদন্তের দায়িত্ব পান থানার এসআই সাইফুল ইসলাম। তিনি বদলি হয়ে যাওয়ায় এসআই মশিউর রহমানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। তিনি ২০২০ সালের ২১ জানুয়ারি নিজাম উদ্দিনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন। চার্জশিটে ভুল থাকায় ওই বছরের ১ নভেম্বর মামলাটি পুনঃতদন্তের জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন আদালত। এরপর একই বছরের ২০ ডিসেম্বর মামলাটির অভিযোগপত্র জমা দেন তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. মোবারক হোসেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে ১৩ জন সাক্ষীকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়। গত বছরের ১১ অক্টোবর আসামি নিজাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচারকাজ শুরু হয়। মামলা দায়েরের পর আসামি নিজাম উদ্দিন গ্রেপ্তার হন। নিজাম ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top
error: Content is protected !!