রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ চান না এরদোগান

image-515909-1643785084.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট:  রাশিয়া ও ইউক্রেন যুদ্ধে জড়াক সেটি চায় না তুরস্ক। ওই দুই দেশের মধ্যে সংঘাত এ অঞ্চলে শান্তি বিঘ্নিত করবে বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। খবর আনাদোলুর।

মঙ্গলবার ট্রাবজন শহরে যুবকদের এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় তুর্কি প্রেসিডেন্ট আশা প্রকাশ করে বলেন যে, দুই দেশের মধ্যকার বিতর্কের বিষয়গুলো শান্তিপূর্ণভাবে সমাধান হবে।

‘আমরা কখনই চায়নি রাশিয়া ও ইউক্রেন যুদ্ধে জড়াক। ন্যাটোর জোটভুক্ত দেশ হিসেবে আমরা এই দুদেশের মধ্যকার যুদ্ধাবস্থা মেনে নিতে পারি না। এটি ভালো কোনো ফল বয়ে আনবে না।’

এরদোগান এ বিষয়ে দুতিয়ালি করবেন এমন ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, চলতি মাসে আমি ইউক্রেন সফরে যাব। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও শিগগিরই তুরস্কে আসবেন। তখন আমাদের মধ্যে এ বিষয়ে আলোচনা হবে।

মস্কো ও কিয়েভের মধ্যকার দ্বন্দ্ব নিরসনে বেশ কয়েকবার উদ্যোগ নিয়েছেন বলে জানান এরদোগান। দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের একত্রে বসাতে সম্প্রতি তিনি বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেছেন।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট বলেন, রুশ-তুরস্ক সম্পর্ক অতীতের যে কোনো সময়ের তুলনায় এখন ভালো। যে কারণে দুই দেশের বাণিজ্য লাভবান হচ্ছে।

রাশিয়ার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে আরও একটি পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের ইঙ্গিত দিয়ে এরদোগান বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে সম্ভবত আমরা দ্বিতীয় পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করব। পরমাণু শক্তি এবং গ্যাসের আদান-প্রদান আমাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে আরও মজবুত করেছে। পররাষ্ট্রনীতির জন্য এটি একটি বড় ভিত্তি।
রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কিনছে তুরস্ক। যুক্তরাষ্ট্র দুই দেশের মধ্যকার ক্ষেপণাস্ত্রের আদান-প্রদান মেনে নিতে পারছে না।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top
error: Content is protected !!