বিএল কলেজের ১৯৯৯ ও ২০০১ শিক্ষা বর্ষের ইংরেজি বিভাগের প্রথম পুনর্মিলনী

1651738829791.jpg

খবর বিজ্ঞ‌প্তি//
নগরীর ঐতিহ্যবাহি শতবর্ষী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি বিএল কলেজের ১৯৯৯ ও ২০০১ ব্যাচের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রথম রিইউনিয়ন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৪ মে বটিয়াঘাটার সিটি রিসোটে দিনব্যাপী এ আয়োজন সকাল ৯ টায় শুরু হয়ে সন্ধ্যায় শেষ হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রাক্তন সকল শিক্ষার্থীকে ও সম্মানিত অতিথিদেরকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। পরে উপস্থিত সকল শিক্ষার্থী ও অতিথিদেরকে রিইউনিয়নের টি-শার্ট, ক্যাপ ও সুভেনির তুলে দেয়া হয়। ইংরেজি বিভাগের প্রফেসর মো. তৌহিদুজ্জামান ও প্রফেসর কার্তিক চন্দ্র মন্ডল কেক কেটে রিইউনিয়নের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন। সম্মানিত এ দুজন প্রফেসরকে রিইউনিয়ন উপলক্ষে তাদের হাতে রিইউনিয়নের টি-শার্ট, ক্যাপ ও সুভেনির তুলে দেয় দুই ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা। এ উপলক্ষে ইংরেজি বিভাগের প্রফেসর মো. তৌহিদুজ্জামান, প্রফেসর কার্তিক চন্দ্র মন্ডল ও প্রফেসর মো. ইকবাল হোসেন পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন।

প্রফেসর মো. তৌহিদুজ্জামান তার বক্তব্যে বলেন “তোমরা এত বছর পরেও যে আমাদেরকে মনে রেখেছো, আমাদেরকে স্মরণ করে এখানে দাওয়াত দিয়েছে সত্যিই আমি অভিভূত। এ অনুভূতি প্রকাশ করে বোঝাতে পারবো না। আমার মনে হচ্ছে আমি আবার যেন বিএল কলেজের ক্যাম্পাসে তোমাদের সাথে ফিরে এসেছি”।

প্রফেসর কার্তিক চন্দ্র মন্ডল বলেন “তোমরা বিভিন্ন পেশাতে আলোর দ্যুতি ছড়াচ্ছো তোমাদেরকে এতদিন পরে দেখে আমার ভালো লাগছে। জীবনের সকল স্তরে সত্য পথে চলবে”। পরে অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে প্রফেসর মো. আলমগীর কবির শরীফ সুদূর আমেরিকা থেকে ভার্চুয়ালি রিইউনিয়নে যোগ দিয়ে স্মৃতি রোমন্থন করেন। উপস্থিত দুই ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা তাদের কলেজ জীবনের স্মৃতি রোমন্থন করেন। অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে স্মৃতি রোমন্থন করেন শুভ্র রেজা ও সেলিনা কেয়া। সবশেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও রেফেল ড্র এর মাধ্যমে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি হয়।

রিইউনিয়নে উপস্থিত ছিলেন দুই ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্যে রফিক রনি, রবিউল ইসলাম লিটন, শান্তনু বিশ্বাস, দেবকী মন্ডল, সঙ্গিতা বিশ্বাস, স্বপ্না সমাদ্দার, সোহাগী খানম, লস্কর সোহেল রানা, দেব বিশ্বাস, অনিমেশ হালদার, রিপন বৈরাগী, আমাম সুজা, শেখ মুহিত ফয়সাল, ইমতিয়াজ হোসেন, তুহিন বিশ্বাস, ফারুক হোসেন, দেবপ্রসাদ মোহান্ত, জামান মিঠু, আঞ্জুমান আরা লুনা, শেখ ইমরান হোসেন, বংকিম সেন, আব্দুল কাদের রবি, সাফারুল ইসলাম, সত্যজিৎ বিশ্বাস, মো. হাদিউজ্জামান, শীলা, নাসরুল্লাহ আহমেদ, এস এম রাজু আহমেদ, আব্দুল্লাহ আল মামুন, তুলি, মাসুদুর রহমান, সেলিনা কেয়া, আশরাফ নাহার তানিয়া, আবুল কালাম আজাদ, চায়না ভৌমিক, রাফিজ রেজা, গৌতম মালাকার, বিপ্লব মন্ডল, শেখ আসাদুজ্জামান, জিহাদ হোসেন, বাসুদেব, মলি নন্দী, মনির, সোহেল, মনিরা খানম, বিকাশ রাজবংশী, শ্যামা রায়, রতন বিশ্বাস, রেহনুমা মনি, রুনা লায়লা হ্যাপি, চৌধুরী রওশন, শুভ খান, সুকদেব, দীনা, মুকুন্দ, লোপা, রোজী, শুভ্র রেজা, দেবাশীষ বসু, শামীম গাজী, সবুজ শীল, সালমা খানম, জেমি, মুর্শিদুল রাজিব, শুক্লা রায়সহ অন্যন্যরা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা । শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠান শেষে প্রতি বছর এরকম রিইউনিয়ন আয়োজনের প্রস্তাব দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ করেন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top