ইউক্রেনে হামলার প্রস্তুতি রা‌শিয়ার: পোল্যান্ডে পৌঁছাছে মার্কিন সেনা

IMG_20220206_162040.jpg

প্রতি‌দিন ডেস্ক:ইউক্রেনে হামলা চালানোর জন্য রাশিয়া ৭০ শতাংশ প্রস্তুত বলে দাবি করছে যুক্তরাষ্ট্র। যদিও এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেয়নি মার্কিন কর্মকর্তারা। এদিকে রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনার মধ্যেই শনিবার পোল্যান্ডে পৌঁছালো মার্কিন সেনাদের প্রথম দল।

একইসঙ্গে পোল্যান্ডে নতুন করে সামরিক সরঞ্জামও পাঠানো শুরু করেছে ওয়াশিংটন। ইউক্রেনে সম্ভাব্য রুশ আগ্রাসন মোকাবিলায় পূর্ব ইউরোপে শক্তি বাড়াচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এরই অংশ হিসেবে পোল্যান্ডে পৌঁছাল মার্কিন সেনা দল।
গত বুধবার পূর্ব ইউরোপে নতুন করে ৩ হাজার সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। পেন্টাগন জানায়, জার্মানিতে অবস্থানরত মার্কিন বাহিনীর এক হাজার সদস্যকে রোমানিয়ায় স্থানান্তর করা হবে। আর দুই হাজার সেনাকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে পোল্যান্ড ও জার্মানিতে মোতায়েন করা হবে।

এর আগে রাশিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা হামলার নাটক সাজানোর অভিযোগ এনেছিল যুক্তরাষ্ট্র। ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে রাশিয়া-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী বা রাশিয়ার ওপর হামলার মিথ্যা অভিযোগ আনার পরিকল্পনা রয়েছে মস্কোর এমনটাই দাবি করছিল পেন্টাগন।

এছাড়াও বেলারুশে রাশিয়া ৩০ হাজার সেনা ও আধুনিক যুদ্ধাস্ত্র পাঠিয়েছে বলে দাবি করেছে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো। ইউক্রেনে হামলার অজুহাত তৈরি করতে দেশটির সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মিথ্যা হামলার অভিযোগ আনতে যাচ্ছে রাশিয়া। এক্ষেত্রে সাজানো হামলা ঘটিয়ে তার ছবি তোলা হবে বলে দাবি করেছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এর আগে গত মাসে একই দাবি করেছিল মার্কিন গোয়েন্দা বাহিনী।

জবাবে রাশিয়া বলছে, তারা কোনো মিথ্যা হামলার অভিযোগ আনার চেষ্টা করছে না। মহড়ার জন্য ইউক্রেন সীমান্তে সেনা জড়ো করেছে বলে দাবি মস্কোর। চলতি মাসে রাশিয়ার বার্ষিক মহাড়ায় এসব সেনা এবং অস্ত্র অংশ নিবে। এরই মধ্যে রাশিয়া ও বেলারুশ সেনাদের যৌথ মহড়া পরিদর্শনে বেলারুশে গেছেন রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোগু।

এদিকে সামরিক জোট ন্যাটোর মহাসচিবের জেন্স স্টলটেনবার্গ দাবি, গত কয়েক দিনে ইউক্রেনের পাশের দেশ বেলারুশে ৩০ হাজার সেনা, আধুনিক যুদ্ধ বিমান ও অস্ত্র পাঠিয়েছে রাশিয়া। এটি কোল্ড ওয়ারের পর বেলারুশে সবচেয়ে বড় সামরিক মোতায়েন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top
error: Content is protected !!