স্যার ফজলে হাসান আবেদ-এর অবদানকে স্মরণ করলো ব্র্যাক ব্যাংক

Sir-Fazle-Webinar.jpg

ঢাকা অফিসঃ বিশতম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদ কেসিএমজি-এর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেছে ব্র্যাক ব্যাংক।
৮ জানুয়ারি, ২০২২ ব্যাংকের আয়োজিত ওয়েবিনারে দেশের প্রথিতযশা অর্থনীতিবিদবৃন্দ বাংলাদেশে সাধারণ মানুষদের আর্থিক অন্তর্ভুক্তি কার্যক্রমে স্যার ফজলে-এর অবদান নিয়ে আলোচনা করেন।
স্যার ফজলে-এর দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভার্চুয়াল এ আলোচনায় তাঁকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হয়। ব্যাংকিং সুবিধার বাইরে থাকা সাধারণ মানুষদেরকে আর্থিক বলয়ের মধ্যে নিয়ে আসতে তাঁর অবদান নিয়ে ওয়েবিনারে আলোচনা করা হয়।
পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন-এর চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ও উন্নয়ন সমন্বয় এর এক্সিকিউটিভ চেয়াপারসন ড. আতিউর রহমান, পলিসি রিসার্স ইন্সটিটিউট এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও ব্র্যাক ব্যাংক-এর চেয়ারম্যান ড. আহসান এইচ মনসুর এবং ব্র্যাক ব্যাংক-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম রেজা ফরহাদ হোসেন আলোচনায় অংশ নেন।
পাঁচ দশক ধরে দারিদ্র দূরীকরণ ও বৈশ্বিক উন্নয়নে স্যার ফজলে-এর অবদান অনন্যসাধারণ। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর প্রতিষ্ঠা করে ব্র্যাক-কে তিনি বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ ও কার্যকর বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থায় পরিণত করেন। উন্নয়ন, নৈতিকতা, মহানুভবতা এবং দেশ ও দেশের মানুষের প্রতি নিখাদ ভালোবাসার যে নিদর্শন তিনি দেখিয়েছেন তা বিশ্বে ভীষণ বিরল।

ওয়েবিনারে অংশ নিয়ে ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, “স্যার ফজলে মানুষের আর্থিক অন্তর্ভুক্তি, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য-সহ সমন্বিত উন্নয়নে বিশ্বাসী ছিলেন। সমতা ভিত্তিক সমাজ গড়ে তোলায় তাঁর ছিল দূরদর্শিতা ও উদ্ভাবনী ক্ষমতা। তাঁর জীবন ছিল স্বার্থক। তিনি দেশে বিদেশে লাখ লাখ মানুষের জীবনে উন্নয়ন সাধন করেছেন।”

ড. আতিউর রহমান বলেন, “স্যার ফজলে ছিলেন একজন নান্দনিক ব্যক্তিত্ব। তিনি দেশের মানুষের বহুমাতৃক উন্নতি ও দেশের টেকসই উন্নয়নে নিরলস কাজ করে গেছেন। তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নে ব্র্যাক ব্যাংক ও বিকাশ কাজ করে যাচ্ছে। দেশের মানুষের জন্য ও নতুন প্রজন্মের জন্য তিনি সবসময় অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবেন।”

ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, “ব্যাংকিং সুবিধার বাইরে থাকা সাধারণ মানুষের নিকট আর্থিক সেবা পৌঁছে দিতে নিবেদিতভাবে কাজ করেছেন স্যার ফজলে। তিনি স্বপ্ন দেখতেন যে, একদিন ব্র্যাক ব্যাংক এর মোট ঋণ পোর্টফোলিও এর ৫০% হবে এসএমই। এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত সন্তুষ্টির যে, তাঁর এ স্বপ্ন আমরা বাস্তবে রূপ দিতে পেরেছি। ব্র্যাক ব্যাংক এর এসএমই ঋণের পরিমাণ এখন মোট পোর্টফোলিও ৫৩%। নারীদের ক্ষমতায়নে তাঁর স্বপ্নকে লালন ও ধারণ করে আগামীতে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য ব্যাংকের ঋণ বিতরণ কার্যক্রম আরও সম্প্রসারণ করতে হবে।”

আলোচনায় অংশ নিয়ে সেলিম রেজা ফরহাদ হোসেন বলেন, “স্যার আবেদ সবসময় বলতেন, ছোট সুন্দর, কিন্তু বৃহৎ প্রভাবসৃষ্টিকারী। তাই তিনি আরও মানুষের কাছে সেবা পৌঁছে দিতে যেকোন কার্যক্রমের কলেবর বৃহৎ করতে পরামর্শ দিতেন। আগামী প্রজন্ম তাঁর দ্বারা অনুপ্রাণিত হবে। বাতিঘর হিসেবে তাঁর দর্শন, দীক্ষা ও মানবিক গুণাবলী প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে বিরাজ করবে।”

তাঁর প্রতিষ্ঠিত ব্র্যাক এর ক্ষুদ্রঋণ, ব্র্যাক ব্যাংক ও মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস বিকাশ এর মাধ্যমে আর্থিক অর্ন্তুক্তিতে তাঁর দৃঢ় প্রতিশ্রুতির প্রমাণ পাওয়া যায়।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top