করোনায় আক্রান্ত প্রায় অর্ধশত মন্ত্রী-এমপি ও রাজনীতিক

image-189957-1643270295.jpg

অনলাইন ডেস্ক
করোনার ঢেউ আবারও আঘাত হানছে জোরেশোরে। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের হার। এমপি মন্ত্রী ও রাজনীতিবিদরাও আক্রান্ত হচ্ছেন সমানতালে। এই মুহূর্তে করোনায় আক্রান্ত সংসদ সদস্যের সংখ্যাই চল্লিশ বলে নিশ্চিত করেছে সংসদ সচিবালয় সূত্র।

সংসদ সদস্য ছাড়াও মন্ত্রী এবং ক্ষমতাসীন জোট ও বিরোধী দলগুলোর রাজনীতিবিদদের করোনা আক্রান্তের খবর পাওয়া যাচ্ছে।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাবুদ্দিন করোনায় আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে ,পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং, পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, রাজশাহী সিটি করপোশেনের মেয়র ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মঈনুল হোসেন খান নিখিল, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের ও কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলাও আক্রান্ত হয়ে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এদিকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সপরিবারে আক্রান্ত হয়েছিলেন কয়েকদিন আগে। তিনি সম্প্রতি নেগেটিভ রিপোর্ট পেয়েছেন। গতকাল বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।

১৬ জানুয়ারি একাদশ জাতীয় সংসদের ১৬তম অধিবেশন শুরু হওয়ার পর গত কয়েক দিনে ৪০ জনের মতো সংসদ সদস্য এবং সংসদ সচিবালয়ের ২ শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

অধিবেশন মাত্র পাঁচ কার্যদিবস চলছে। এ অল্প সময়ে করোনা সংক্রমণের এমন ঊর্ধ্বগতির কারণে সংসদের চলতি ১৬তম অধিবেশন সংক্ষিপ্ত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। সে মোতাবেক আজ শেষ হতে পারে এই অধিবেশন।

এ বিষয়ে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম সাংবাদিকদের বলেন, করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে স্বাস্থ্যঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে অধিবেশন সংক্ষিপ্ত করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার অধিবেশন শেষ হবে।

সংসদের চলতি অধিবেশন ২০২২ সালের প্রথম অধিবেশন। সাধারণত প্রথম এই অধিবেশন দীর্ঘদিন ধরে চলে। কারণ সংবিধানের বিধান অনুযায়ী এ অধিবেশনের প্রথম বৈঠকে রাষ্ট্রপতি ভাষণ দেন। পরে সে ভাষণের ওপর আলোচনার জন্য ধন্যবাদ প্রস্তাব আনা হয়। সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি অধিবেশন কয়েক দফায় মুলতবি করে ফেব্রুয়ারির শেষ পর্যন্ত চালানোর জন্য পরিকল্পনা নেয়া হয়েছিলো। কিন্তু করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের ব্যাপক বিস্তারের কারণে ওই পরিকল্পনায় পরিবর্তন এনে অধিবেশন সংক্ষিপ্ত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এ বিষয়ে ইকবালুর রহিম সাংবাদিকদের বলেন, শীতকালীন অধিবেশন হিসেবে আমাদের আরও কয়েকটা দিন চালানোর পরিকল্পনা ছিলো। কিন্তু করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় অধিবেশন সংক্ষিপ্ত করছি। আমাদের কাছে মানুষের জীবন গুরুত্বপূর্ণ।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top