বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির (২০২২-২৪) সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান

292790_kanchan.jpg

নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন (ছবি: সংগৃহীত)

বিনোদন ডেস্ক:

বাংলাদেশের বিনোদন জগতের সবচেয়ে বড় দুটি সংগঠনের এবারের নির্বাচন নিয়ে কেবল শোবিজপাড়ায় নয় আলোচনা হয়েছে দেশজুড়ে। দুই সংগঠনের নির্বাচনের ঢামাঢোল বেজেছে চায়ের দোকান থেকে সর্বত্র। গতকালের নির্বাচনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি পদে ইলিয়াস কাঞ্চন ও সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খান নির্বাচিত হয়েছেন। অন্যদিকে অভিনয় শিল্পী সংঘের সভাপতি পদে  আহসান হাবিব নাসিম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন রওনক হাসান।

ফল ঘোষণার পর দুই সংগঠনের বিভিন্ন পদে নির্বাচিতরা দ্য ডেইলি স্টারের কাছে নিজেদের অনুভূতি ব্যক্ত করেছেন।

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি পদে নির্বাচিত হওয়া ইলিয়াস কাঞ্চন নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের অন্যতম রূপকার। ঢাকাই সিনেমার সবচেয়ে ব্যবসাসফল সিনেমা ‘বেদের মেয়ে জোছনা’র নায়ক তিনি। তাকে ঘিরে ছিল বেশি প্রত্যাশা। সেই প্রত্যাশা ভোটাররা পূরণ করেছেন। জয়ের পর দ্য ডেইলি স্টারকে তিনি বলেন, ‘এই জয় ভালোবাসার জয়। এই জয় শিল্পীর প্রতি শিল্পীর দায়ভারের। সকল শিল্পীর প্রতি আমার ভালোবাসা। আমার নতুন করে চাওয়া-পাওয়ার কিছু নেই। এখন একটাই চাওয়া চলচ্চিত্র শিল্পের জন্য কিছু করতে চাই। শিল্পীদের জন্য কিছু করতে চাই। সব মিলিয়ে আমাদের সিনেমার জন্য কাজ করতে চাই। সারাজীবন ভালো কাজের পক্ষে ছিলাম। আগামীতেও থাকব।’

সহসভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন নায়ক রুবেল ও খলনায়ক ডিপজল। দু’জনে হারিয়েছেন নায়ক রিয়াজ ও ডিএ তায়েবকে। অ্যাকশন সিনেমার নায়ক রুবেল বলেন, ‘অবশ্যই ভালো লাগছে। সৃষ্টিকর্তার কাছে শোকরিয়া। চলচ্চিত্র আমাকে সবার কাছ থেকে ভালোবাসা দিয়েছে, সেই চলচ্চিত্র শিল্পীদের পাশে সারাজীবন থাকতে চাই। এটাই আমার প্রত্যাশা।’

সাংগঠনিক পদে জয় লাভ করেছেন নায়িকা শাহানুর। তিনি জহির রায়হানের লেখা ‘হাজার বছর ধরে’ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত সিনেমায় অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন। তিনি বলেন, ‘জয় নিয়ে আত্মবিশ্বাস ছিল। শিল্পীদের প্রতি ঋণী হয়ে থাকব। পুরো প্যানেল জয় লাভ করলে আরও ভালো লাগত। কৃতজ্ঞ সবার কাছে।’

নায়ক ফেরদৌস বেশ ভালোভাবেই নির্বাচনের মাঠে ছিলেন। জয়ী হওয়ার পর বলেন, ‘ভীষণ আনন্দ হচ্ছে। ভালো লাগার পরিমাণ বেশি। ইলিয়াস কাঞ্চন ভাই জয়ী হওয়ায় বেশি খুশি হয়েছি। পুরো প্যানেল জয়ী হলে আনন্দ বেশি হত। চলচ্চিত্র অনেক দিয়েছে। এবার কাঞ্চন ভাইকে নিয়ে সিনেমা জগতকে কিছু দিতে চাই।’

কার্যকরী পরিষদে জয়ী হয়েছেন নায়িকা মৌসুমী। তিনি বলেন, ‘এবারের নির্বাচন নিয়ে সবার মধ্যে বেশ উত্তেজনা ছিল। আমার মধ্যেও ছিল। যাদের ভোটে জয়ী হয়েছি তাদের জন্য আমার ভালোবাসা। যতদিন বাঁচব তাদের জন্য কাজ করে যাব।’

এদিকে টেলিভিশন নাটকের শিল্পীদের সবচেয়ে বড় সংগঠন অভিনয় শিল্পী সংঘের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে আহসান হাবিব নাসিম বলেন, ‘সারাজীবন মঞ্চ নাটক করেছি। থিয়েটারের মানুষরা আমার সব। সবার ভালোবাসা ও দোয়া এবং ভোটে জয়ী হয়েছি। গত ২ বারে অনেক কাজ করেছি। অসমাপ্ত কাজগুলো এখন করতে চাই।’

সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী রওনক হাসান বলেন, ‘অভিনয় শিল্পীরাই আমার সব। সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা। শিল্পীরা আমাকে দিয়েছেন। এবার তাদেরকে দেওয়ার পালা। আশা করছি সুন্দর কিছু দিতে পারব।

অভিনয় শিল্পী সংঘের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে জয়ী সাজু খাদেম বলেন, ‘আমার বিজয় সব শিল্পীর বিজয়। জয়ের পর ড. ইনামুল হক স্যারকে খুব মনে পড়ছে।’

আইন ও কল্যাণ সম্পাদক পদে জয়ী হয়েছেন ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর। তিনি বলেন, ‘আমি সব শিল্পীর প্রতি কৃতজ্ঞ। শিল্পীদের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা থাকবে সারাজীবন। মন-প্রাণ দিয়ে সংগঠনের জন্য কাজ করে যাব।’

কেপি/ এস

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top
error: Content is protected !!